স্পিয়ারম্যানের দ্বি- উপাদান তত্ত্ব টি   আলোচনা করো ?

  স্পিয়ারম্যানের দ্বি- উপাদান তত্ত্ব টি   আলোচনা করো ?
  স্পিয়ারম্যানের দ্বি- উপাদান তত্ত্ব

সাধারণ মানসিক ক্ষমতা কাকে বলে?  স্পিয়ারম্যানে দ্বি- উপাদান তত্ত্বটি  (Spearman two factor theory) আলোচনা কর

স্পিয়ারম্যানের দ্বি- উপাদান তত্ত্ব ব্রিটিশ মনোবিদ চার্লস স্পিয়ারম্যান  (Spearman) ১৯০৪ সালে অ্যামেরিকান জার্নাল অফ সাইকোলজি তে “ জেনারেল ইন্টেলিজেন্স অবজেক্টিভলি ডিটারমাইন্ড এন্ড মেজারড” শিরনামে মানসিক ক্ষমতার  দ্বি- উপাদান তত্ত্বটি  প্রকাশ করেন।তিনি তার এই তত্ত্বটি জ্যামিতিক এবং গাণিতিক যুক্তির উপর প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

মূল বক্তব্যঃ স্পিয়ারম্যান বিভিন্ন পরীক্ষা থেকে এই সিধান্তে আসেন যে মানুষের যেকোনো ধরণের বৌদ্ধিক কাজের জন্য দুই ধরণের ক্ষমতা বা উপদানের প্রয়োজন হয়। এক- সাধারণ মানসিক ক্ষমতা বা G উপাদান দুই- বিশেষ মানসিক ক্ষমতা বা  S উপাদান

পরিনমন  কি ? শিক্ষাক্ষেত্রে পরিনমনের ভূমিকা আলোচনা করো ?

 

সাধারণ মানসিক ক্ষমতা বা G উপাদানঃ

যে মানসিক ক্ষমতা সবরকম বৌদ্ধিক কাজ করতে প্রয়োজন হয় এবং যা পরিবর্তনশীল পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সাহায্য করে তাই হল সাধারণ মানসিক ক্ষমতা বা G উপাদান।

বৈশিষ্ট্যঃ

১. সাধারণ মানসিক ক্ষমতা  জন্মগত ।

২. এই মানসিক ক্ষমতা  বিকাশশীল ।

৩. এই ক্ষমতা  অপরিবর্তনীয় ।

৪. এই মানসিক ক্ষমতা  সর্বজনীন ।

৫. এই  ক্ষমতা  প্রত্যেক মানুষের মধ্যে কম বেশি থাকে ।

৬. এটি  সব রকম বৌদ্ধিক কাজের জন্য প্রয়োজন।

৭. এই মানসিক ক্ষমতা পরিমাপযোগ্য ।

 বিশেষ মানসিক ক্ষমতা বা  S উপাদানঃ

 যে মানসিক ক্ষমতা বিশেষ বিশেষ কাজের জন্য প্রয়োজন হয়, যা অনুশীলন নির্ভর এবং সাধারণ মানসিক ক্ষমতার উপর নির্ভরশীল তাকে বিশেষ মানসিক ক্ষমতা বা  S উপাদান।

বৈশিষ্ট্যঃ

১. এটি একটি বিশেষধর্মী মানসিক ক্ষমতা।

২. এই ক্ষমতা অনুশীলন সাপেক্ষ ।

৩. এই মানসিক ক্ষমতা অর্জিত ।

৪. এটি সংখায় বহু হয় ।

৫. এই উপাদান সর্বজনীন নয় ।

৬. এই উপাদান ব্যক্তি ভেদে ভিন্ন ভিন্ন হয়।

দ্বি- উপাদান তত্ত্বের জ্যামিতিক ব্যাখ্যাঃ

স্পিয়ারম্যান তাঁর মানসিক ক্ষমতার দ্বি-উপাদান তত্ত্বটিকে একটি জ্যামিতিক চিত্রের সাহায্যে ব্যাখ্যা করেছেন।

জ্যামিতিক চিত্র
জ্যামিতিক চিত্র

চিত্রটি লক্ষ্য করলে দেখা যায়, বড় বৃত্তটি  হল “ G” বা সাধারণ উপাদানের ভাণ্ডার । যে খানে ১ নং কাজটি সম্পাদন করতে একটি সাধারণ উপাদান G1 এবং বিশেষ উপাদান S1 লেগেছে। যার সমষ্টিগত রুপ হল  W1  G1+ S1 ।  ২ নং কাজের জন্য একটি সাধারণ উপাদান G2 এবং বিশেষ উপাদান S2  লেগেছে । যার যার সমষ্টিগত রুপ হল  W2    G2 + S2  । অনুরুপভাবে,  তৃতীয় কাজটির সমষ্টিগত রুপ হল W3 G3+ S3  । সুতরাং প্রত্যেকটি কাজ G1, G2, G3 সম্পাদনে একটি সাধারণ উপাদান বিভিন্ন পরিমানে ব্যবহৃত হয়। যা গুণগত ভাবে এক কিন্তু পরিমানগত ভাবে ভিন্ন। কিন্তু বিশেষ উপাদান গুলি S1, S2, S3  গুণগত ভাবে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে ব্যবহৃত হয়।  তাই একটি কাজ করতে যেমন সাধারণ উপাদানের প্রয়োজন হয় তেমনি বিশেষ উপাদনেরও প্রয়োজন হয়।

সুতরাং বলা যায় দ্বি- উপাদান তত্ত্বে  দেখানো হয়েছে, সকল কাজের জন্য সাধারণ উপাদানের সঙ্গে বিশেষ উপাদান যুক্ত হয়ে বিশেষ বিশেষ কাজ  সুষটভাবে সম্পন্ন করে “ G” উপাদান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়ে থাকে। স্পিয়ারম্যান এই “ G” উপাদান বা সাধারণ মানসিক ক্ষমতাকে বুদ্ধি বলেছেন।